ছবির দেশে,কবিতার দেশে

Chobir-Deshe-KobitarDesheসনুীল গঙ্গোপাধ্যায় আমার অসম্ভব প্রিয় লেখকদের একজন।তাঁর চলে যাওয়াটা অনেকের মত আমিও মেনে নিতে পারি না।একবার চিন্তা করুন তো সনুীলের লেখা ছাড়া বাংলা সাহিত্য।আমার মনে হয় এটা চিন্তা করাও দোষের।সনুীলের হাত ধরে বাংলা সাহিত্য পাড়ি দিয়েছে অনেক পথ।বাংলা সাহিত্য সনুীল গঙ্গোপাধ্যায়কে নিয়ে গেছে খ্যাতির চুড়ায়।বিনিময়ে তিনি বাংলা সাহিত্যকে দিয়েছেন অফুড়ন্ত কবিতা,গল্প-উপন্যাস আর অসামান্য কিছু প্রবন্ধ।ছবির দেশে,কবিতার দেশে সেরকমই একটি বই বা খন্ড একটি আত্মজীবনীও বলা যায়।কোন বইয়ে বর্ননা বেশী থাকলে আমার ভাল লাগে না।কিন্তুু এই বইটি পড়ে মনে হয়েছে বর্ননা না থকলে কোন ভাবে বইটি পাঠকদের বোঝানো যেতো না।বর্ননাও যে এত নিখুঁদ এবং সুন্দর ভাবে দেওয়া যায় ছবির দেশে,কবিতার দেশে বইটি পড়লে বুঝা যায়।আমার মতে প্যারিস না দেখলেও চলবে কিন্তু এই বই না পড়লে জীবন বৃথা।অসাধারণ একটা বই প্যারিস নিয়ে।সুনীল এর ভ্রমন কাহিনী গুলো এক নিঃশ্বাসে পরার মত।প্যারিসের শহরের বিবরন পড়ে শহরটি চোখের সামনে দেখছিলাম পড়ার সময়।সনুীলে বর্ননাতে শুধু জায়গার বিবরণী থাকে না, থাকে ইতিহাস,মতবাদ, গল্প-মিথ সবকিছু।ফ্রান্সকে বলা হয় চিত্রকলার ভূ-স্বর্গ,প্যারিস হলে তো কথাই নেই।বইটি পড়লে পৃথিবী বিখ্যাত কাছু আর্ট সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যাবে।আছে আসাধারন কিছু কবিতার লাইন।মার্গারিট নামের মেয়েটিকে সনুীল ভালবেসে ছিলেন কিনা জানিনা।তবে মার্গারিট নামের ফরাসি মেয়েটি তার জীবনের অনেকটা অংশ জুড়ে ছিল।মার্গারিটার কাছ থেকে অনেক কিছু জেনে ছিলেন তিনি।বইটির প্রায় অর্ধেক জুড়ে  মার্গারিটার কথা আছে।ছবির দেশে,কবিতার দেশে বইটি না পড়লে সনুীল গঙ্গোপাধ্যায় অনেক কিছু অজানা থেকে যাবে।

Write a Review with Facebook