কাকাবাবু সমগ্র

Kakababu Samagraসুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের সৃষ্টি কাকাবাবু। ওরফে রাজা রায়চৌধুরী।চরিত্রটির সাথে ছোট বড় প্রায় সবারই পরিচয় আছে।কাকাবাবু চরিত্রটি সৃষ্টি করে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান।এবং বাংলা সাহিত্য পায় আর একটি অসাধারন চরিত্র।অন্য ডিটেকটিভ চরিত্রের সাথে কাকাবাবুর মিল নেই।কাকাবাবু চরিত্রটিকে আমার মনে হয়েছে অ্যাডভেঞ্চারার।তাকে প্রফেসনাল গোয়েন্দা বলা যাবে না।টাকার বিনিময়ে কিছু করেন না।অন্য ডিটেকটিভদের মত তিনি একাই একশ নন কারন তার একটি পায়ে সমস্যা আছে।তাকে ক্রাচে ব্যবহার করতে হয়।তাই বলে কাকাবাবুকে দূর্বল ভাবার কোন কারন নেই।দুহাতে তার প্রচন্ড শক্তি।আর সাহসের কোন তুলনা হয়না।

মিশর রহস্য কিংবা ককাবাবু ও জলদস্যু কাহিনীগুলো পড়লে বুঝা যায়।গল্পগুলো পড়েছি বলেই পৃথিবীর নানা প্রান্তর ঘুড়তে পেরেছি কাকাবাবুর সাথে।কখনও গিয়েছি হিমালয়ে,কখনও মিশরে, কিংবা আন্দামানের ঘন জঙ্গলে।বইগুলো পড়ার সময় আমার সত্যি মনে হত আমিও আছি কাকাবাবু সাথে।সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের লেখার ধরনই এমন।পাঠককে গল্পের সাথে এক করে দেন।কাকাবাবুর প্রথম অভিযান গল্পটি পড়লে বুঝা যাবে কি কারনে কাকাবাবু খোঁড়া হলেন।কাকাবাবুর খ্যাতির কথা দেশে এবং দেশের বাইরে সবার জানা।শত্রুরা তাকে ভয় পায়,তার আসাধারন বুদ্ধি এবং অন্তরে অসীম সাহসের জন্য।কাকাবাবু ব্যবহার কিন্তু অমায়িক এবং সবার কাছে সৎজন হিসাবেই পরিচিত।পায়ের অভাব পূরণ করেছে তার ভাইপো সন্তু।কাকাবাবুর সহকারি।অনেক অভিযানে সন্তু সাহায্য করেছে কাকাবাবুকে।অনেক রহস্য সন্তুর সক্রিয় অংশগ্রহন না হলে সমাধান হতো না।উপযুক্ত কেস পেলেই ছুটে যাচ্ছেন কাকাবাবু ও সন্তু।কাকাবাবুর বইগুলো নিয়ে অনেক পরে বের হয়েছে সমগ্র।বর্ণনা বেশি আছে এমন বইপড়তে আমার কখনই ভাল লাগে না।কিন্তু বর্ণনার জায়গায় সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের বেতিক্রম।তার লেখার সবথেকে ভালো দিক হচ্ছে বর্ণনা।যেমন তিনি যখন কোন জায়গার বর্ণনা করেন, তখন পাঠকদের চোখের সামনে সে জায়গাটির ছবি ভেসে উঠবে।কাকাবাবু বনাম চোরাশিকারি গল্পে জঙ্গলের যে বর্ণনা সুনীল দিয়েছেন তার কোন তুলনা হয় না।কাকাবাবুকে নিয়ে নতুন করে আর কোন গল্প লিখা হবে না ভাবলেই খারাপ লাগে।যারা অ্যাডভেঞ্চার গল্প ভালোবাসেন তারা পড়তে পারেন কাকাবাবু।

Write a Review with Facebook